বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ০৫:৫২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
অনিয়মের সংবাদ প্রকাশের পর পরিবেশ অধিদপ্তর গাজীপুরের ডিডি নয়নের বদলির আদেশ দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন,বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মো.সাইফুল ইসলাম। উজিরপুরে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অভিযান ২ টি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা নান্দাইলে আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের গৃহ নির্মানে কোটি টাকার অনিয়মের অভিযোগ বিরামপুরে আইনশৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত বিরামপুরে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা দপ্তরের আয়োজনে দুইটি কর্মশালা শুরু টঙ্গীতে কোরবানির পশুর হাট জাল টাকা রোধ ও নিরাপত্তায় সব প্রস্তুতি সম্পন্ন গাজীপুর জেলা প্রশাসন কর্তৃক সম্পাদনায় “শিশু মননে বঙ্গবন্ধু” শীষর্ক বইটি বিতরণ নকলায় অকুপেশনাল স্কিল কোর্সের প্রশিক্ষণ কর্মশালা উদ্বোধন নকলায় দিনব্যাপি বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা

শ্রীবরদী গারো পাহাড়ে সরকারি বনের জমি দখল করে অবাধে চলছে সবজি চাষ, ক্ষতবিক্ষত গারো পাহাড় | সময়ের দেশ

মোঃ বিল্লাল হোসেন, ঝিনাইগাতী (শেরপুর) প্রতিনিধি :
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১৭৭ বার পড়া হয়েছে

শেরপুরের শ্রীবরদীতে বনবিভাগের জমি দখল করে অবৈধভাবে অবাধে সবজি চাষের অভিযোগ উঠেছে। ময়মনসিংহ বনবিভাগের শ্রীবরদী উপজেলার বালিজুরি ফরেস্ট রেঞ্জ এলাকায় বনবিভাগের শতশত একর জমিতে সবজির আবাদ করা হচ্ছে। স্থানীয় ভুমিদস্যুরা শতশত একর পাহাড়ি বনের জমি দখল করে অবাধে সবজি চাষ করে চলেছে। পাহাড়ি টিলা কেটে অবাধে সবজি চাষ করায় পাহাড়ে ভূমি ধ্বসের সৃষ্টি হওয়ার পাশাপাশি ক্ষতবিক্ষত হয়ে পরেছে গারো পাহাড়। স্থানীয়দের মতে পাহাড়ের টিলা কেটে অবাধে সবজি চাষ করায় বর্ষা মৌসুমে পাহাড়ের মাটি ধ্বসে কর্নঝোড়ার পাহাড়ি ডেউপা নদীটি ভরাট হয়ে গেছে। এ ছাড়া পাহাড়ের টিলা কেটে অবাধে সবজি আবাদের কারনে গারো পাহাড়ের সৌন্দর্য বিনষ্ট হচ্ছে। জানা গেছে, গারো পাহাড়ের জমি দখল করে অবৈধভাবে সবজি চাষের প্রথাটি বেশকিছু দিন থেকে শুরু হলেও বর্তমানে তা ব্যাপক আকার ধারণ করেছে। সরেজমিনে অনুসন্ধানে গিয়ে দেখা গেছে, শতশত কৃষক শতশত একর পাহাড়ি জমি দখল করে অবাধে সবজি আবাদের প্রতিযোগীতায় মেতে উঠেছে। পাহাড়ের যে স্থানে রয়েছে একটু ফাঁকা জায়গা সেখানেই দখল করে গড়ে তোলা হচ্ছে সবজি আবাদ। পরিস্থিতি দেখে মনে হয় এসব দেখার যেন কেউ নেই। বন কর্মচারীরা নিরব ভূমিকা পালন করে আসছেন। নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কয়েকজন সবজি চাষীদের সাথে কথা হলে জানা গেছে, তারা বলের জমিতে সবজির আবাদ করতে প্রতিটি সবজি মৌসুমে বন কর্মকর্তাদের দিতে হয় একর প্রতি ২ হাজার করে টাকা। তারা জানান, প্রতি বছর এসব পাহাড়ি জমিতে ৩ টি করে সবজির আবাদ করা হয়। এ ভাবে শতশত একর পাহাড়ি জমিতে অবাধে সবজির আবাদ করা হচ্ছে। উদ্ধার তৎপরতা না থাকায় দিনে দিনে বেদখল হযে যাচ্ছে বনের। তবে বনবিভাগের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে সবজি চাষিদের কাছ থেকে টাকা নেয়ার বিষয়টি ষড়যন্ত্র। তাদের মতে ভূমিদস্যুরা প্রভাবশালী হওয়ায় বন কর্মকর্তাদের নির্দেশনা মানছেন না তাড়া। এতে বন কর্মকর্তারা এক প্রকার নিরব ভূমিকা পালন করে আসছেন। ফলে দিনে দিনে বনের শতশত একর পাহাড়ি জমি বেদখল হয়ে যাচ্ছে। অপরদিকে সৌন্দর্য হাড়াচ্ছে গারো পাহাড়। এ বিষয়ে বালিজুরি ফরেস্ট রেঞ্জ কর্মকর্তা রবিউল ইসলাম বলেন, লোকবলের অভাবে বনের বেদখলীয় জমি উদ্ধারে তাদের হিমসিম খেতে হচ্ছে। এছাড়া বনের বেদখলীয় জমি উদ্ধারে বনবিভাগের পক্ষ থেকে মাঠে নামলেই শুরু হয় ভূমিদস্যুদের ষড়যন্ত্র। এতে ব্যাহত হয় জমি উদ্ধার প্রক্রিয়া।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৪৬ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:০১ অপরাহ্ণ
  • ১৬:৩৭ অপরাহ্ণ
  • ১৮:৪৯ অপরাহ্ণ
  • ২০:১৫ অপরাহ্ণ
  • ৫:১০ পূর্বাহ্ণ
©2020 All rights reserved
Design by: POPULAR HOST BD
themesba-lates1749691102